ঢাকাসোমবার , ৪ মার্চ ২০২৪
  • অন্যান্য

আমতলী পৌর নির্বাচনে হলফনামায় তিন প্রার্থীর রোজ নামচা

আজকের বিনোদন
মার্চ ৪, ২০২৪ ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ । ৭৭ জন
Link Copied!
দৈনিক আজকের বিনোদন সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মল্লিক জামাল,  স্টাফ রিপোর্টার:-
বরগুনার আমতলী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মুল প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান ও সাবেক মেয়রের মনোনয়ন পত্র দাখিলের সময় দেওয়া হলফ নামায় অর্থ ও সম্পদে এগিয়ে রয়েছেন বর্তমান মেয়র মতিয়ার রহমান আর শিক্ষায় এগিয়ে রয়েছেন সাবেক মেয়র নাজমুল আহসান নান্নু।মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মতিয়ার রহমান এর স্ত্রী’র নুসরাত জাহানের (তিনিও মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন) কয়েক কোটি টাকার অর্থ সম্পদ থাকলেও সাবেক মেয়র নাজমুল আহসান নান্নু’র স্ত্রী মাহমুদা বেগম রুমার নেই কোন অর্থ সম্পদ।
আসছে ৯ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য আমতলী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৯জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বর্তমান মেয়র মতিয়ার রহমান ও সাবেক মেয়র নাজমুল আহসান নান্নু’র মধ্যে।
প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর হলফনামা ঘেটে দেখা যায় সাবেক মেয়র নাজমুল আহসান নান্নু’র শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি আর বর্তমান মেয়র মতিয়ার রহমান এসএসসি পাস। পাশাপাশি অর্থ সম্পদে বর্তমান মেয়র মতিয়ার রহমান এগিয়ে। মতিয়ার রহমান এর বার্ষিক আয় ৩৪ লক্ষ তিরাশি হাজার পাঁচশত আশি টাকা।অস্হাবর সম্পদের মধ্যে নগদ ২৮ লক্ষ পয়ত্রিশ হাজার নয়শত তেত্রিশ টাকা এবং ১০ তোলা স্বর্ন রয়েছে। স্থাবর সম্পদের মধ্যে জমি ২৬,৬৩৯৩ একর,দালান তিনটি,৪৫ টি বানিজ্যিক স্টল এবং মৎস্য খামারে বিশ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ রয়েছে। মেয়র মতিয়ার এর চেয়ে তার স্ত্রী নুসরাত জাহানের অর্থ ও স্বর্ন বেশি।তার অস্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে নগদ দুই কোটি সত্তর লক্ষ আটান্ন হাজার পাঁচশ ছত্রিশ টাকা। বীমা খাতে এক লক্ষ সাতচল্লিশ হাজার পাঁচশত পঞ্চাশ টাকা,সঞ্চয়পত্রে পয়তাল্লিশ লক্ষ টাকা,নোহা গাড়ী একটি এবং ২৫ তোলা স্বর্ন রয়েছে। স্হাবর সম্পদের মধ্যে জমি .৯১৫৫ একর এবং মৎস্য খামারে ১৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করা রয়েছে।
অপর প্রার্থী নাজমুল আহসান নান্নু’র বার্ষিক আয় দশ লক্ষ টাকা এবং অস্থাবর সম্পদ নগদ দশ লক্ষ টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ন রয়েছে। স্হাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে জমি ৮.১২০৩ একর, ১৭৬ বর্গমিটারের দ্বিতীয় তলা দালান এবং ১৯৪ বর্গ মিটারের একটি এপার্টমেন্ট রয়েছে কিন্তু তার স্ত্রীর নামে কোন সম্পদ নেই।
এ বিষয়ে বরগুনা জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল হাই আল হাদী বলেন,প্রার্থীরা হলফনামায় যে তথ্য দিয়েছেন ঐ তথ্য নির্বাচন কমিশনে পাঠিয়ে দিয়েছি।