ঢাকারবিবার , ২১ এপ্রিল ২০২৪
  • অন্যান্য

কালীগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী তিন জন সবাই আওয়ামী লীগ।

আজকের বিনোদন
এপ্রিল ২১, ২০২৪ ৫:২৫ অপরাহ্ণ । ১০০ জন
Link Copied!
দৈনিক আজকের বিনোদন সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কালীগঞ্জ( গাজীপুর) প্রতিনিধি :
 গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জে আসন্ন ৮ই মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তিনজন সবায় আওয়ামী লীগ নেতা। এতেকরে ত্রিমুখী অবস্থান নিয়েছে আওয়ামী লীগ নেতারা।এর আগে কখনো এরুপ অবস্থানে পড়েনি  দলটি।বিগত দ্বাদশ জাতীয় সাংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ এর মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতিক নিয়ে প্রার্থী হন মহিলা আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রার্থী হন আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির রাজশাহী বিভাগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান। এতেকরে সংসদ নির্বাচন গিরে দলটির নেতা কর্মীরা দ্বিধা বিভক্ত হয়।তখন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী  বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান।সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী মাঠে একনিষ্ঠ ভাবে কাজকরা নেতা জেলা আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফি মেহেদি হাছান স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান এর পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী।মহিলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি  নৌকা প্রতিক নিয়ে পরাজিত হলে ও পরবর্তী সময়ে সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।তিনির পক্ষে মাঠে কাজ করা কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ এর ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব মেহের আফরোজ চুমকি এর পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী।আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আমজাদ হোসেন স্বপন গত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে আলোচনায় আসতে না পারলেও এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ার প্রার্থী হয়ে আলোচনায় আসতে পেরেছেন। ফলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পেরেছেন।
    উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিন সরকার বলেন যেহেতু দল কোন মনোনয়ন দেয় নাই।তাই দলীয় ভাবে কাউকে সমর্থন দেওয়ার সুযোগ নাই।
     বিগত সংসদ নির্বাচনের পর  নির্বাচিত সংসদ সদস্য  ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য অনুসারীদের মধ্যে একাধিক বার সংঘাত সৃষ্টি হয় এবং  তিন শতাধিক নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়।এতেকরে দলের বিতরে কোন্দল বেড়ে চলেছে প্রতিনিয়ত। স্থানীয় নেতাকর্মীরা আশংকা করছেন আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে  তা আরো বৃদ্ধি পাবে এবং দলীয় কোন্দল চরম আকার ধারণ কর্বে। যা পরবর্তী সময়ে নিয়ন্ত্রণ করা দলের জন্য কঠিন হয়ে পড়বে।
    আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে বর্তমান সংসদ সদস্য বীর মুক্তি যোদ্ধা আক্তারুজ্জামান এমপি বলেন নির্বাচন আচরন বিধি অনুসারে এমপি কোন প্রার্থীকে সমর্থন করতে পাড়বে না।তাই আমি কোন প্রার্থীর পক্ষে  সমর্থন করিনি।সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য মহিলা আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বলেন এটা দলীয় নির্বাচন নয়। দল কাউকে মনোনয়ন দেয়নি। তাই জনগন যাকে যোগ্য মনে করবে তাকে নির্বাচিত করবে।