ঢাকাসোমবার , ২৯ এপ্রিল ২০২৪
  • অন্যান্য

তুরস্ক সাথে বাণিজ্য, সংস্কৃতি ও কূটনৈতিক সংযোগ বাড়ানোর আহবান

আজকের বিনোদন
এপ্রিল ২৯, ২০২৪ ৬:৪২ পূর্বাহ্ণ । ২৪ জন
Link Copied!
দৈনিক আজকের বিনোদন সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা:
International Academy of Sufi Scholars- এর ডিরেক্টর বোর্ডের চলতি বছরের সমাপনী সভায় ডিরেক্টরগণ প্রতি বছর বিশ্বের অন্তত দুটি দেশে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এছাড়া তথ্য-প্রযুক্তি ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যথোপযুক্ত ব্যবহার, ইসলামি বিভিন্ন বিষয়ে ফতোয়া প্রদান এবং প্রতিটি দেশের জন্য  মানবিক নানা বিষয়ে সহায়তা জোড়দারে ঐকমত্য হয়।
বাংলাদেশের লাল সবুজের গৌরবের পতাকার প্রতিনিধি ড. সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং চলমান উন্নয়ন অগ্রযাত্রার চিত্র সভায় তুলে ধরে বলেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন করার পর নানা প্রতিকূলতা পেরিয়ে আজ উন্নয়নশীল ও অর্থনৈতিকভাবে অপার সম্ভাবনার দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তুরস্ক ও বাংলাদেশ- এ দুটি দেশই ‘ডি-৮’ বা ‘ডেভলপিং ৮’ এর সদস্য রাষ্ট্র। দুটি দেশের অর্থনীতি ক্রমশ শক্তিশালী হচ্ছে। মুসলিম দেশ হিসেবে দুই দেশেরই সাংস্কৃতিক সংযোগ রয়েছে।  তাই দুটি দেশের মাঝে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ও সাংস্কৃতিক বিনিময় আরো বেগবান করা প্রয়োজন। তুরস্ক ও বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক প্লাটফর্মে নিপীড়িত মুসলিম জনগোষ্ঠীর পক্ষে কথা বলে যাচ্ছে। সিরিয়ার শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়ে তুরস্ক এবং রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ মানবিক দায়িত্ববোধের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রতিটি মুসলিম দেশ যদি এভাবে মুসলিম ভাইদের নিয়ে ভাবতো, তবে আজ ফিলিস্তিনের এ পরিস্থিতি হতো না।
“International Academy of Sufi Scholars” এর ডিরেক্টর বোর্ডেকে ফিলিস্তিনসহ বিশ্বের নিপীড়িত  মুসলিম বিশ্বের অধিকার আদায়ে সরব ভূমিকা পালনের আহবান জানান ড. সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী।
২৭ এপ্রিল, আয়োজিত এই অনুষ্ঠান শেষে ড. সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারীকে বিশেষ সম্মাননা স্মারক, সার্টিফিকেট ও সংবর্ধনা প্রদান করে ‘International Academy of Sufi Scholar’ ও ‘Darul Ifta Foundation’.
‘International Academy of Sufi Scholars’ এর আয়োজনে ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ থেকে তুরস্কে ‘International Scientific Conference’ এবং বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আয়োজিত সিম্পোজিয়াম, সেমিনারে বাংলাদেশ থেকে বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন, ‘International Institution of Sufi Studies’ এর প্রতিষ্ঠাতা, মাইজভাণ্ডার শরিফের সাজ্জাদানশীন, ড. শাহ্জাদা সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী। এ সকল আয়োজনে প্রায় ৩০টি দেশের শীর্ষ সুফি শেইখ, স্কলার, মুফতি, ওলামা মাশায়েখ, বুদ্ধিজীবী, গবেষক এবং তুরস্ক সরকারের উচ্চ পর্যায়ের মন্ত্রি, গভর্নর ও সরকারি কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেছেন।